Govtjob360

Search
Close this search box.

মাধ্যমিক পাশে মিউনিসিপালিটিতে 127 জন্য কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ। KMC Job Recruitment।

পশ্চিমবঙ্গের চাকরি প্রার্থীদের জন্য ফের নয়া সুসংবাদ। রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরে ফের শতাধিক পদে নিয়োগের বিজ্ঞাপ্তি প্রকাশ করেছে। বিজ্ঞাপ্তিতে জানানো হয়েছে,শুধু মাধ্যমিক পাস যোগ্যতায় রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের অধীনে কলকাতা মিউনিসিপালিটি তে কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞাপ্তি প্রকাশ করেছে।  আরো জানানো হয়েছে , এক্ষেত্রে কোনো লিখিত পরীক্ষা ছাড়াই মাধ্যমিকের নম্বরের উপর ভিত্তি করে সরাসরি ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে। পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা সহ উপযুক্ত যোগ্যতা থাকলে আবেদন করতে পারবে। যে সকল চাকরি আবেদন সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে চাই তারা নিচে শেষ অবধি পড়বেন। নিচে শূন্যপদ ,আবেদন পদ্ধতি ও নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পর্কে সবিস্তারে আলোচনা করা হবে।

পদের নাম : Honorary Health Workers 

মোট শূন্যপদ : 127 টি 

শিক্ষাগত যোগ্যতা : বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতা শুধু মাধ্যমিক পাশ বা তার সমতুল্য যোগ্যতা থাকলেই হবে। এছাড়াও উচ্চ যোগ্যতা থাকলেও আবেদন করতে পারবে কিন্তু মাধ্যমিকের উপর ভিত্তি করে নিয়োগ করা হবে। 

 বয়সসীমা:আবেদনকারীর সাধারণত বয়স হতে হবে নূন্যতম 30 বছর এবং সর্বোচ্চ 40 বছরের মধ্যে। এছাড়াও ওবিসি, এসসি, এসটি ও PH সংরক্ষিত মহিলারা 22 বছর হলে আবেদন করতে পারবে।

কীভাবে আবেদন করবেন :
যে সকল চাকরি প্রার্থী রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের অধীনে সামাজিক স্বাস্থ্য কর্মী পদে আবেদন করতে ইচ্ছুক তাদের অফলাইনের মাধ্যমে আবেদন পত্র জমা করতে হবে। অফলাইন আবেদন পত্র ডাউনলোড করতে পারবে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ গিয়ে অথবা অফিসিয়াল নোটিশ ডাউনলোড করে সবচেয়ে নিচে দেখেনিবেন সেখানে আবেদন পত্র দেখেনিবেন। 

আবেদন পত্রের সঙ্গে কী কী নথিপত্রের জেরক্স কপি জমা করতে হবে : 
1.বয়সের প্রমাণপত্র / মাধ্যমিক পরীক্ষার এডমিট কার্ড
2.শিক্ষাগত যোগ্যতার সমস্ত ডকুমেন্টস (মার্কশিট ও সার্টিফিকেট)
3.জাতিগত সার্টিফিকেট(যদি থাকে)
4.বাসিন্দা প্রমান ( ভোটার কার্ড/আধার কার্ড)
5.সম্প্রতি পাসপোর্ট সাইজের ছবি (রঙ্গিন)
6.আধার / ভোটার কার্ড/প্যান/পাসপোর্ট (যে কোনো একটি) 
7.বিবাহিত /বিবাহ বিচ্ছেদ /বিধবা প্রমাণ ( সরকারি)
8.অন্যান্য (যদি থাকে)
9.5 টাকার পোস্টাল স্ট্যাম্প
10. 25×13 অনুযায়ী খামে ভরে খামের উপর পোস্টাল 

আবেদন জমা করার ঠিকানা :To the Municipal Commissioner, Kolkata Municipal Corporation, 5, S. N. Benarjee Road, Kolkata – 700013 and also are to be submitted physically at the CMO Building, 2nd floor in fornt of Room no. 254

আরও কী কী যোগ্যতা লাগবে :
 কেন্দ্রে স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োগ করা হবে, তাই এই পদের ক্ষেত্রে শুধু মহিলারাই আবেদন করতে পারবে এবং অবশ্যই তাদের হতে হবে বিবাহিত/বিবাহবিচ্ছেদ/ বিধবা। 

প্রার্থীদের সংশ্লিষ্ট জেলার স্থায়ী বাসিন্দা বা সংশ্লিষ্ট সাব সেন্টারের স্থায়ী বাসিন্দা হলে আবেদন করতে পারবে। 

নিয়োগ প্রক্রিয়া : কোনো লিখিত পরীক্ষা ছাড়াই সরাসরি ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে নিয়োগ করা হবে।

আবেদন সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে অথবা অফিসিয়াল নোটিশ কিংবা আবেদন পত্র ডাউনলোড করতে নিচের দেওয়া লিঙ্ক ক্লিক করে দেখেনিবেন। 

Official Notice : Download 

Official Website : Click Here

ভারতীয় পোস্ট জনহিতৈষী অনেক যোজনা নিয়ে আসার পর এবার ভারতের জনগনের জন্য কিষান বিকাশ পত্র নামের আরেক ছোট সঞ্চয় প্রকল্প নিয়ে হাজির হয়েছে দেশের কৃষকদের সামনে। নাম থেকেই বুঝতে পারছেন যে, এই স্কিমটি তৈরি হয়েছে মূলত কৃষকদের জন্য। তবে এখানে যে কেউই টাকা জমা করতে পারেন। সম্পূর্ন ঝুঁকিহীন এই প্ল্যান আপনার জন্য দারুন প্রমাণিত হতে পারে।Post Office New Scheme ।

এই প্রকল্পে কত বিনিয়োগ করতে হয় : আপনি 1 হাজার টাকা থেকে নিজের বিনিয়োগ শুরু করতে পারেন। এরপর নিজের সুবিধামত টাকার অংক বাড়িয়েও নিতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি 50 হাজার টাকার বেশি অংক জমা করতে চান তাহলে আপনাকে নিজের প্যান কার্ডের ডিটেলস জমা দিতে হবে।Post Office Investment for New Scheme 

অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য বয়সের কী সীমা রয়েছে : ন্যূনতম 18 বছর বয়স হলেই যে কেউ এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে। এছাড়া এই স্কিমে বয়সের কোনো ঊর্ধ্বসীমা রাখা হয়নি। এছাড়া অভিভাবক কোনো নাবালকের অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে। Post Office New Account 

কত সুদ পাওয়া যায় এই স্কিমে : কিষান বিকাশ পত্র (KVP) এর অধীনে আপনি নিজের আমানতের ওপর 6.9 শতাংশ সুদের ফায়দা ওঠাতে পারবেন। নিজের জমা দেওয়া টাকা 10 বছর 4 মাসের মধ্যে দ্বিগুণ হবে। এই স্কিম দেশের জনগণের মাঝে দ্বিগুণ হওয়ার জন্যও বেশ জনপ্রিয়। এই স্কিমে কোনো ঝুঁকি নেই, নিরাপদে টাকা জমা করা যায় এবং দ্বিগুনও করে নেওয়া যায় নিজের টাকা!

কত সময় লাগবে টাকা দ্বিগুণ হতে : এখানে 6.9 শতাংশ সুদ পাওয়া যায়। সর্বনিম্ন 1 হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন আপনি। এখানে আপনার বিনিয়োগের পরিমান 124 মাস বা 10 বছর 4 মাসে দ্বিগুণ হয়ে যায়।

এই প্রকল্পে বিনিয়োগের জন্য অ্যাকাউন্ট কোথায় খোলা হয় : 10 বছর উত্তীর্ণ হলে তার অভিভাবক এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। পোস্ট অফিসের এই স্কিমে, 18 বছর বা তার বেশি বয়সের তিনজন ব্যক্তি একসাথে একটি যৌথ অ্যাকাউন্টও খুলতে পারেন। সারা দেশের যেকোনো পোস্ট অফিসে এই স্কিমে বিনিয়োগ করে সুবিধা পাওয়া যায়।

এই প্রকল্পে কীভাবে বিনিয়োগ করবেন : আপনি যদি এবার এই স্কিমে বিনিয়োগ করতে চান তাহলে আপনাকে নিজের নিকটস্থ যেকোনো পোস্ট অফিসে গেলেই হলো। আবেদন পত্র পূরণ করে টাকা জমা দিলেই হলো। আবেদন এবং অর্থ জমা দেওয়ার পরে, আপনি কিষান বিকাশ পত্রে বিনিয়োগের শংসাপত্র পাবেন।

তবে মাথায় রাখবেন এই স্কিম কিন্তু আয়কর আইনের 80(C) অধীনে আসে না। এক্ষেত্রে আপনি বিনিয়োগের পরে যে রিটার্ন পাবেন সেখানে আপনাকে কর দিতে হবে। তবে এই স্কিমের মাধ্যমে ঋণ নেওয়ার সুবিধা রয়েছে, সেখানে গ্যারান্টি হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে এই কিষান বিকাশ পত্র।

চাকরি, ব্যবসা ও সমস্ত ডিজিটাল আপডেট
আপনাকে ডিজিট্যালি আপডেট রাখতে, সব সময় সজাগ আমরা।
Telegram Channel Link

WhatsApp Group Join Now
Telegram Group Join Now

Leave a Comment