ঘরের মেয়েদের টাকা দেওয়ার ঘোষণা সরকারের, এই ভাবে আবেদন করুন -Central Government Scheme

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী আসনে বসার পর বহু প্রকল্প উদ্ভাবন করেছেন যার মাধ্যমে ভারতবাসীরা বেশ উপকৃত হয়েছে। এই প্রকল্পগুলির মধ্যে একটি প্রকল্পের নাম হল ভাগ্যলক্ষ্মী যোজনা। এই ভাগ্যলক্ষ্মী যোজনার মাধ্যমে কন্যা সন্তানদের জন্য বেশ মোটা টাকা অর্থ অনুদান দেওয়া হয়। এবার জেনে নেওয়া যাক যে কিভাবে এই প্রকল্পে আবেদন করা যাবে? কত টাকা পর্যন্ত এই প্রকল্পের অনুদান পাওয়া যায়? প্রভৃতি প্রশ্নের উত্তর।Central Government Scheme

central Government Scheme

ভাগ্যলক্ষ্মী যোজনায় কি কি সুবিধা পাওয়া যায়?

ভাগ্যলক্ষী যোজনার মাধ্যমে কন্যা সন্তান জন্মানোর সময় সরকার কন্যার পরিবারকে পঞ্চাশ হাজার টাকার বন্ড দিয়ে থাকে। এরপর কন্যার যখন ২১ বছর বয়স হয় তখন ওই বন্ডটি দুই লক্ষ টাকার যোগ্য হয়। কন্যার ২১ বছর বয়স হলে কন্যা সন্তানের মা ৫১ হাজার টাকা সরকারের তরফ থেকে পেয়ে থাকেন। আবার মেয়েটি বিভিন্ন ক্লাসে যখন পড়াশোনা শুরু করে তখন সরকারের তরফ থেকে আর্থিক সহায়তায় পায়।

আর্থিক সহায়তার পরিমাণ হল-
১)ষষ্ঠ শ্রেণীতে প্রায় তিন হাজার টাকা
২)অষ্টম শ্রেণীতে প্রায় 5000 টাকা
৩)দশম শ্রেণীতে প্রায় সাত হাজার টাকা
৪)দ্বাদশ শ্রেণীতে প্রায় আট হাজার টাকা।
কারা এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন?
১) একটি পরিবারের দুইজন মেয়ে এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারবে।

২) যে পরিবারের মাসিক আয় কুড়ি হাজার টাকার কম তারাই কেবল এই প্রকল্পের আওতায় আসতে পারবেন।

৩) কন্যা সন্তান জন্মানোর ছয় মাসের মধ্যে এই প্রকল্পের জন্য তার পরিবার আবেদন জানাতে পারবেন।

৪) এই প্রকল্প চালু করতে গেলে কন্যা সন্তানের বার্থ সার্টিফিকেট অবশ্যই প্রয়োজনীয়।

৫) এই প্রকল্প যেহেতু উত্তরপ্রদেশেই চালু করা হয়েছে তাই উপভোক্তাদের অবশ্যই উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা হতে হবে।

ভাগ্যলক্ষ্মী যোজনায় কীভাবে আবেদন করবেন?
১) ভাগ্যলক্ষী যোজনায় আবেদন করতে গেলে প্রথমে এই প্রকল্পের ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

২) ওই ওয়েবসাইটে গিয়ে নিউ রেজিস্ট্রেশন অপশনে গিয়ে ভাগ্যলক্ষ্মী প্রকল্পের জন্য ফর্ম ফিলাপ করতে হবে।

৩) ফর্মটি নির্ভুলভাবে পূরণ করে প্রয়োজনীয় নথিগুলি স্ক্যান করে আপলোড করার পরে সাবমিট বাটনে ক্লিক করলেই ভাগ্যলক্ষ্মী যোজনার জন্য আবেদন পত্র জমা দেওয়ার কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস
ভাগ্যলক্ষ্মী যোজনার ফর্ম পূরণ করার সময় যে ডকুমেন্টসগুলির প্রয়োজন হবে সেগুলো হল
১) কন্যার পিতামাতার আধার কার্ড।
২) মেয়ের আধার কার্ড ও বার্থ সার্টফিকেট।
৩) বসবাসের শংসাপত্র।
৪) পারিবারিক আয়ের শংসাপত্র।
৫) পিতামাতার জাতিগত শংসাপত্র।
৬) পিতা/মাতার চাকরির শংসাপত্র।
৭) কন্যার নামে থাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বিবরণ।

Leave a Comment

x