মাত্র 10 হাজারে সুপারহিট ব্যবসা, লাভ হবে অর্ধেক , এক্ষুনি বিস্তারিত পড়ুন -Business Idea small investment

এখন এই দুর্মূল্যের বাজারে প্রতিটি মানুষই চায় চাকরির পাশাপাশি একটি ব্যবসা করতে। সেই কারণে বহু মানুষ নতুন নতুন ব্যবসার দিকে ছুটছে। আজকে আমরা এই আর্টিকেলের মাধ্যমে একটি ব্যবসা নিয়ে আলোচনা করব যেখানে বেশ কিছু টাকা বিনিয়োগ করে মোটা টাকার লাভবান হওয়া যায়।Business Idea small investment

business idea small investment

কথায় আছে পুরনো চাল ভাতে বারে। এই কথাটা যদি আমরা সকলেই মেনে চলি তাহলে এমনই একটি বহু দিনের পুরনো ব্যবসার কথা বলব যা বহু যুগ থেকেই মানুষকে লাভবান করে আসছে। এই ব্যবসাটি হল স্টেশনেরীর ব্যবসা। এই ব্যবসা করার জন্য আপনি যে টাকা বিনিয়োগ করবেন তার ৫০ শতাংশ টাকা লাভের আশা আপনি করতেই পারেন। এই ব্যবসাটির জন্য যে দোকানের প্রয়োজন হয় সেই দোকানটি যদি কোনো স্কুলের কাছাকাছি হয় তাহলে তো বলে কথাই নেই। ওই দোকানে আপনি চাইলেই স্কুলের বই খাতাও বিক্রি করতে পারবেন এতে আপনার লাভ বেশি হবে তো কম নয়।Business Idea Small Investment

 

আপনার ছোট্ট দোকানটিতে কি কি জিনিস আপনি বিক্রির জন্য রাখতে পারেন?

স্টেশনারি ব্যবসা খোলা জন্য প্রথমে যেটিকে আপনাকে করতে হবে সেটা হল প্রথমে ‘শপ অ্যান্ড এস্টাব্লিসমেন্ট অ্যাক্ট’-এর আওতায় একটি রেজিস্ট্রেশন করা। স্টেশনারি ব্যবসার জন্য আপনি যে দোকানটি নিবেন ওই দোকানে বিক্রির জন্য আপনি যেমন পেন পেন্সিল, নোটপ্যাড A4 সাইজের কাগজ রাখবেন। পাশাপাশি বিয়ের কার্ড, গিফট কার্ড, সেলোটেপ প্রভৃতি জিনিসও রাখতে পারেন।

 

কত টাকা বিনিয়োগ করতে হয়?

স্টেশনের ব্যবসার জন্য যে দোকানটির প্রয়োজন হয় সেই দোকানটি 300 থেকে 400 স্কয়ার মিটারের হলেই ভালো হয়। স্টেশনারি ব্যবসা খুব কম পঁজিতে শুরু করা যেতে পারে। প্রথমে আপনি দশ হাজার টাকা দিয়েও এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

 

লাভ কেমন হয়?

স্টেশনারি ব্যবসা করতে গেলে দোকান খোলার জায়গাটা বাছাই করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। কোনো বাজার এলাকা বা স্কুলের কাছাকাছি স্থানে দোকান নেওয়া উচিত। যদি কোনো নামী কোম্পানির প্রোডাক্ট বিক্রি করা হয় তাহলে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ লাভ হওয়া অবশ্যম্ভাবী।

মার্কেটিং করা-

স্টেশনারি দোকানের জিনিস বিক্রি করার জন্য মার্কেটিং করাটা খুবই প্রয়োজনীয় বিষয়। দোকানের কার্ড ছাপিয়ে সকলের মাঝে সেই কার্ড বিলি করলেও কিছুটা মার্কেটিংয়ের কাজ হয়ে যায়। আবার যদি দোকানটি স্কুলের নিকটবর্তী স্থানে হয় সে ক্ষেত্রে স্কুলের ছেলেমেয়েদের দোকান সম্পর্কে অবগত করালেও দোকানের জিনিস বিক্রি হতে পারে। বর্তমান যুগের মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া নির্ভর তাই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আপনার দোকানটির বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

Leave a Comment

x